শনিবার, ১৩ Jul ২০২৪, ১২:৪৮ অপরাহ্ন

নোটিশ :
সিলেট বিভাগসহ দেশের প্রতিটি জেলা ও উপজেলা সদরে প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে। আগ্রহীরা আমাদের পত্রিকার ইমেইল ঠিকানায় পূর্নাঙ্গ জীবন বৃত্তান্ত প্রেরণের আহবান জানানো যাচ্ছে। এছাড়া প্রবাসের বিভিন্ন দেশে আমরা প্রতিনিধি নিয়োগ দিচ্ছি।
শিরোনাম :
সেই ১৪ ট্রাক চোরাই চিনির নিলাম আজ বিপৎসীমার ওপরে সুরমার পানি, ভোগান্তিতে লক্ষাধিক মানুষ বেড়েছে ধলাই নদীর পানি, ঝুঁকিপূর্ণ প্রতিরক্ষা বাঁধ কর্মবিরতিতে শাবিতে অচলাবস্থা তৃতীয় দফায় বন্যার কবলে সিলেট অঞ্চল, পানিবন্দি কয়েক লাখ মানুষ মাধবপুরে কবরস্থান দখল করে কঙ্কাল তুলে সবজি চাষের অভিযোগ হবিগঞ্জে নাগালের বাইরে সবজির দাম শ্মশানঘাটে ২ শিশুর লাশ সমাহিত করতে বাধা, নদীতে ভাসিয়ে দিল পরিবার হবিগঞ্জে ছোট ভাইয়ের হাতে বড় বোন খুন ভারতে ধর্মীয় অনুষ্ঠানে পদদলিত হয়ে নিহত ১২০ দোয়ারাবাজারে নৌকা ডুবে শিশুসহ নিখোঁজ ৩ সিলেটে মাদকসহ তিন যুবক আটক ধোপাগুলে ট্রাক-কার সংঘর্ষে স্বামী-স্ত্রী নিহত চাঁদাবাজি করতে গিয়ে যুবলীগ নেতা আটক হবিগঞ্জে পানিতে ডুবে দুই শিশুর মৃত্যু শেখ হাসিনা অসহায় মানুষের পরম বন্ধু: শফিক চৌধুরী সিলেট-সুনামগঞ্জে ফের বন্যার শঙ্কা হবিগঞ্জে মাকে হত্যার দায়ে ছেলের মৃত্যুদণ্ড বিদেশি মদসহ দুইজন গ্রেপ্তার দক্ষিণ সুরমায় খাদ্য সামগ্রী বিতরণ জকিগঞ্জে বিপুল পরিমাণ ভারতীয় মদসহ একজন গ্রেপ্তার বিশ্বম্ভরপুর থানায় ব্রেস্ট ফিডিং কর্নার উদ্বোধন হবিগঞ্জে বন্যা পরবর্তী সময়ে খাদ্য সংকটে শিশুরা তারেককে দেশে ফেরাতে জোর তৎপরতা চলছে: প্রধানমন্ত্রী ঈদযাত্রায় ৩০৯টি সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৪৫৮ গাজায় নিখোঁজ ২০ হাজারের বেশি শিশু নগরীতে পুনর্বাসন কেন্দ্রে তিন কিশোরীর আত্মহত্যার চেষ্টা শায়েস্তাগঞ্জে চিনি বোঝাই ট্রাকের চাপায় পুলিশ কনস্টেবল নিহত, আটক ৩ মধ্যনগরে সেই চেয়ারম্যানসহ ২০ জনের বিরুদ্ধে মামলা বন্যার পানি নেমে গেলেও বিপাকে আশ্রয়হীনরা
জায়গা দখলের জন্য নারীকে অপহরণের পর ধর্ষণ!

জায়গা দখলের জন্য নারীকে অপহরণের পর ধর্ষণ!

 

জাগ্রত সিলেট ডেস্ক :: সিলেটে ভিটেমাটি দখলের জন্য এক নারীকে অপহরণের পর ধর্ষণ করা ও তার পরিবারের সদস্যদের প্রাণনাশের হুমকি দেয়ার অভিযোগ উঠেছে আপন চাচাতো ভাইদের বিরুদ্ধে।

 

রবিবার দুপুরে সিলেট জেলা প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে এ অভিযোগ করেন সিলেট সিটি করপোরেশনের ৪০নং ওয়ার্ডের কুচাই মাঝরপাড়া গ্রামের মৃত ইদরিস আলীর মেয়ে ফাতিমা বেগম।

 

লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, দীর্ঘদিন থেকে তাদের ভিটেমাটি ছাড়া করে তাদের ঘরবাড়ি দখলে মরিয়া তারই আপন চাচাতো ভাই মৃত লতিফ আলীর ছেলে অপু আহমদ, তার স্ত্রী মনোয়ারা বেগম, ভাই লিটু আহমদ ও মা খাদিজা বেগম। সেই ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে গত মার্চে শিশুদের ঝগড়া-বিবাদকে কেন্দ্র করে মিথ্যা অভিযোগে তারা মোগলাবাজার থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। ওই মামলায় তার একমাত্র প্রতিবন্ধী ভাই জাহাঙ্গীর মিয়া ২২ দিন কারাবরণ করে জামিনে মুক্তি পান। শুধু তাই নয়, অভিযুক্তরা তার ১৫ বছরের কিশোর ভাগ্নেসহ ফাতিমাকেও আসামি করেছিল। অবশ্য এ মামলায় বর্তমানে তারা সবাই জামিনে রয়েছেন।

 

ফাতিমার আরও অভিযোগ, তার ভাইয়ের জামিনের ব্যাপারে উকিলের সঙ্গে আলাপ করে বাড়ি ফেরার পথে গত ৯ এপ্রিল বিকেল ৪টার দিকে পালপুর গেটের কাছে কুচাই মাঝরপাড়া রাস্তায় তিনি ও তার বোন হাওয়ারুন নেসার ওপর হামলা চালান চাচাতো ভাই অপু ও লিটু। এসময় তারা তার বোনের গহনা ও কাপড়-চোপড় ছিনিয়ে নিয়ে দ্রুত পালিয়ে যান। স্থানীয়রা উদ্ধার করে তাদের সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন। এ ঘটনায় ২২ এপ্রিল তারা মোগলাবাজার থানায় অভিযোগ দায়ের করলেও পুলিশ কোনো ব্যবস্থা নেয়নি।

 

এরপর ২৫ এপ্রিল সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে গোলাপগঞ্জের হাজিপুর শুকনা গ্রামের তাদের আত্মীয়ের বাড়ি থেকে ফেরার পথে সিলেট-জকিগঞ্জ রোডে অপু তার বন্ধু সিলেট সিটি করপোরেশনের ৪১নং ওয়ার্ডের সারপিং গ্রামের শাহজাহান আহমদ কয়েছের ছেলে মানিককে নিয়ে ফাতিমা ও তার বোন হাওয়ারুনের ওপর হামলা করেন। হামলাকারীদের সঙ্গে ছিলেন শাহপরাণ থানার পীরেরচক গ্রামের মৃত সুনাহর আলীর ছেলে অনু মিয়া ওরফে উটুসহ অজ্ঞাত পরিচয় আরও দুই ব্যক্তি। তারা হাওয়ারুনকে (৩০) একটি নোহা গাড়িতে নিয়ে দ্রুত ঘটনাস্থল ত্যাগ করেন। দীর্ঘদিন খোঁজাখুজি করে গত ৮ মে সকাল ৮টায় হাওয়ারুনকে জকিগঞ্জ থেকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করেন। সেখানে ওসিসিতে চিকিৎসা শেষে ডাক্তাররা ছাড়পত্রে তিনি ধর্ষিত বলে উল্লেখ করেছেন। এ ঘটনায় ১৩ মে গোলাপগঞ্জ থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের (নং ০৯/১৩/০৫/২৪) করলেও এখন পর্যন্ত আসামিদের গ্রেপ্তার করা হয়নি। তাই তাদের প্রাণনাশের হুমকি-ধমকি দেওয়া যাচ্ছে।

 

শুধু তাই নয়, সিসিক’র ৪০নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর লিটন আহমদকে দিয়ে সালিশের নামে অযথা তাদের দোষারোপেরও অভিযোগ করেছেন ফাতিমা। তিনি যখন সালিশের তারিখ নির্ধারণ করেন, তারা অপহৃত বোনের খোঁজে উন্মাদপ্রায় অবস্থায় দিন কাটাচ্ছিলেন বলেও সংবাদ সম্মেলনে উল্লেখ করেন তিনি। তিনি অবিলম্বে ধর্ষক অপু, লিটন, মানিক ও অনুসহ তাদের সহযোগীদের গ্রেপ্তারের জোর দাবি জানান। পাশাপাশি তাদের নিরপদ জীবনযাপনে সার্বিক সহযোগিতা প্রদানের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ সিলেট-৩ আসনের সংসদ সদস্য হাবিবুর রহমান হাবিব এবং সিলেটের পুলিশ প্রশাসনের দ্রুত হস্তক্ষেপ চেয়েছেন তিনি।

 

 

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017
Design BY Web Nest BD
ThemesBazar-Jowfhowo