বুধবার, ২৯ মে ২০২৪, ০৪:৫৪ পূর্বাহ্ন

নোটিশ :
সিলেট বিভাগসহ দেশের প্রতিটি জেলা ও উপজেলা সদরে প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে। আগ্রহীরা আমাদের পত্রিকার ইমেইল ঠিকানায় পূর্নাঙ্গ জীবন বৃত্তান্ত প্রেরণের আহবান জানানো যাচ্ছে। এছাড়া প্রবাসের বিভিন্ন দেশে আমরা প্রতিনিধি নিয়োগ দিচ্ছি।
শিরোনাম :
সিলেট বিভাগের ১০টিসহ দেশের ৮৭ উপজেলায় ভোটযুদ্ধ আজ ১০ বছরে শাস্তি পেয়েছেন ১৮১ সরকারি কর্মকর্তা শাহজালালের (র.) মাজারে গিলাফ ছড়ানোর মধ্য দিয়ে শুরু হলো ওরস ব্যাংকের গাফিলতিতে ৬৮২ জনের হজযাত্রা অনিশ্চিত ৪৬ হাজার প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া স্থগিতের নির্দেশ হাইকোর্টের জগন্নাথপুরে ঘূর্ণিঝড় রেমালের প্রভাবে ভেঙে পড়েছে গাছপালা, বিঘ্নিত বিদ্যুৎ সরবরাহ কুলাউড়ায় পানি নিষ্কাশনের অব্যবস্থাপনা আর সড়কের কারণে ভোগান্তি প্রত্যয় স্কিম বাতিলের দাবিতে সিকৃবি শিক্ষকদের কর্মবিরতি প্রধানমন্ত্রী নারীদের উন্নয়নে গুরুত্ব দিয়ে কাজ করছেন: বিভাগীয় কমিশনার শাবির প্রথম ছাত্রী হলে দুই সহকারী প্রভোস্ট নিয়োগ বিয়ের আসরে আসামি, পুলিশ বলছে পলাতক শালায় কলেজ শিক্ষককে পেটালেন পরাজিত চেয়ারম্যান প্রার্থী কুলাউড়ায় বাঁধ ভেঙে প্লাবিত হলো ২০টি গ্রাম ধলাই নদীতে যুবক নিখোঁজ হবিগঞ্জে সাড়ে ৩ লাখ শিশুকে খাওয়ানো হবে ভিটামিন এ প্লাস ক্যাপসুল ঘূর্ণিঝড়ের তাণ্ডবে লণ্ডভণ্ড সুন্দরবন ঘূর্ণিঝড় রেমালের তাণ্ডবে প্রাণ গেল ২১ জনের সিলেটে চোরাই মোটরসাইকেলসহ যুবক গ্রেফতার ওসমানীনগরে প্রবাসীদের নিয়ে ব্র্যাকের কর্মশালা ৭দফা দাবিতে ব্যাটারিচালিত যানবাহন শ্রমিকদের বিক্ষোভ সরকার কৃষকদের প্রতি সবসময় আন্তরিক: সংসদ সদস্য নাহিদ লাখাইয়ে দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ, আহত ১৫ সিলেটের ১০ উপজেলায় তিনদিন মোটরসাইকেল চলাচলে নিষেধাজ্ঞা সিসিকের ভারপ্রাপ্ত মেয়র কামরান সিলেটের ১০ উপজেলায় তিনদিন মোটরসাইকেল চলাচলে নিষেধাজ্ঞা শপথ নিলেন ১১ উপজেলার নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিরা বুক পেতে উপকূলকে রক্ষা করল সুন্দরবন ঘূর্ণিঝড় রিমালে ১০ জনের মৃত্যু, দেড় লাখ ঘরবাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত স্মার্ট বাংলাদেশ গড়তে অংশীদার হোন: প্রধানমন্ত্রী কপিল শর্মা শো’তে কাজের প্রলোভনে ধর্ষণ, গ্রেপ্তার ১
ঈদ আনন্দ ম্লান করতে পারে তাপদাহ

ঈদ আনন্দ ম্লান করতে পারে তাপদাহ

 

জাগ্রত সিলেট ডেস্ক :: ৩০ রোজা হলে ঈদ হবে ১১ এপ্রিল। আরও বাকি চার দিন। চৈত্রের মাঝামাঝি থেকেই এবার তাপদাহ শুরু হয়েছে, যা আরও বাড়ছে। গরমে অনেকটা নাকাল হয়ে পড়েছে জনজীবন। বৃষ্টিও হচ্ছে না সেভাবে। আবহাওয়ার এ অবস্থা চলবে ঈদের দিনও। ঈদের সময় স্বাভাবিকের তুলনায় তাপমাত্রা বেশি থাকবে বলে আবহাওয়া অধিদপ্তর সূত্র জানিয়েছে।

 

ঈদের দিন কেমন থাকবে আবহাওয়া- জানতে চাইলে আবহাওয়া অধিদপ্তরের আবহাওয়াবিদ আব্দুর রহমান শনিবার দুপুরে গণমাধ্যমকে বলেন, এ দিন বৃষ্টির সম্ভাবনা খুবই কম। তাপমাত্রা থাকবে বেশি। গরমের অনুভূতি ও হাঁসফাঁস অবস্থা থাকবে।

 

তিনি জানান, এখন গরম কাল। বৃষ্টির সম্ভাবনাও কম। তাই তাপমাত্রা গরম থাকবে এটাই স্বাভাবিক। তবে বছরের এই সময় কালবৈশাখী ঝড়ের আশঙ্কা থাকে। সেক্ষেত্রে যেকোনো সময় বৃষ্টি হতেও পারে।

 

এ আবহাওয়াবিদ বলছেন, রোববার থেকে তাপমাত্রা কিছুটা কমতে থাকবে। দুই দিন একটু কমের দিকে থাকবে। এরপর আবার বাড়তে থাকবে তাপমাত্রা। তাপমাত্রা গরম থাকলে স্বাভাবিকভাবে গরমের অনুভূমিও থাকবে।

 

এরই মধ্যে ঢাকাসহ দেশের চারটি বিভাগের বিভিন্ন জেলার ওপর দিয়েই মৃদু থেকে মাঝারি ধরনের তাপপ্রবাহ বইছে।

তাই এসব এলাকায় তাপপ্রবাহের সতর্কবার্তা বা ‘হিট অ্যালার্ট’ জারি করেছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। সংস্থাটির আবহাওয়াবিদ মো. মনোয়ার হোসেন বলেন, বর্তমানের আবহাওয়া অবস্থা আরও এক সপ্তাহ চলবে। এপ্রিলজুড়েই সারাদেশে তাপপ্রবাহ থাকবে।

এদিকে শুক্রবার দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে রাজশাহীতে, ৩৯ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা এই মৌসুমের সর্বোচ্চ। গত বছর রাজশাহীর সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছিল ১৭ এপ্রিল, ৪২ দশমিক ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আজ শনিবার রাজশাহীতে দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়েছে। ঢাকায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। ৩৬-৩৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রাকে মৃদু তাপপ্রবাহ বলা হয়ে থাকে। আর ৩৮-৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রাকে বলা হয় মাঝারি তাপপ্রবাহ। তাপমাত্রা ৪০ ডিগ্রির বেশি হলে সেটাকে তীব্র তাপপ্রবাহ বলা হয়।

 

আবহাওয়াবিদরা বলছেন, বাংলাদেশে প্রায় প্রতি বছরই এপ্রিল মাসে গড়ে সাধারণত দুই-তিনটি মৃদু থেকে মাঝারি তাপপ্রবাহ ও এক-দুটি তীব্র থেকে অতি তীব্র তাপপ্রবাহ বয়ে যায়। তবে তারা আশঙ্কা করছেন, এ বছরের তাপপ্রবাহের ব্যাপ্তিকাল বিগত বছরগুলোকে ছাড়িয়ে যাবে।

 

আবহাওয়াবিদ ড. মুহাম্মদ আবুল কালাম মল্লিক বলেন, বিদ্যমান তাপপ্রবাহের কারণে বাতাসে এখন জলীয়বাষ্পের আধিক্য থাকবে। এতে করে মানুষের শরীরে অস্বস্তিবোধ বৃদ্ধি হতে পারে। এপ্রিল উষ্ণতম মাস, এ সময় তাপমাত্রা এমনিতেও বেশি থাকে। কিন্তু এটিকে নিয়ন্ত্রণ করার জন্য বৃষ্টি ও ঝোড়ো হাওয়া দরকার। যখন ঝড় হয়, তখন ভারী বৃষ্টি হয়। বৃষ্টি হলে তাপমাত্রা আর বাড়ে না। কিন্তু ৮-৯ এপ্রিলের আগে ভারী বৃষ্টি হওয়ার কোনো সম্ভাবনা নেই।

 

 

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017
Design BY Web Nest BD
ThemesBazar-Jowfhowo