বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০২৪, ১২:২৫ পূর্বাহ্ন

নোটিশ :
সিলেট বিভাগসহ দেশের প্রতিটি জেলা ও উপজেলা সদরে প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে। আগ্রহীরা আমাদের পত্রিকার ইমেইল ঠিকানায় পূর্নাঙ্গ জীবন বৃত্তান্ত প্রেরণের আহবান জানানো যাচ্ছে। এছাড়া প্রবাসের বিভিন্ন দেশে আমরা প্রতিনিধি নিয়োগ দিচ্ছি।
শিরোনাম :
সিলেটে শিলাবৃষ্টির আভাস ভাই-ভাতিজাদের হাতে খুন হলেন সাবেক ইউপি সদস্য সোনার দাম কমল পদে থেকেই নির্বাচন করতে পারবেন ইউপি চেয়ারম্যানরা সুনামগঞ্জে ট্রাক-অটোরিকশার সংঘর্ষে নিহত ১ জলবসন্তে আক্রান্ত হয়ে এএসআইয়ের মৃত্যু জগন্নাথপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি শংকর রায় আর নেই চুরি করে পালানার সময় গাড়িসহ আটক ১ সিসিকের অভিযান, জরিমানা আদায় উপজেলা নির্বাচনের চতুর্থ ধাপের তফসিল ঘোষণা বাংলাদেশ ও কাতারের মধ্যে ৫টি চুক্তি এবং ৫টি সমঝোতা স্মারক সই সিলেট জেলা ছাত্রলীগের বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি পালিত আ.লীগের দুই প্রার্থীর সাথে লড়বেন স্বর্ণালী হিজড়া সৌদিতে নির্যাতিত হবিগঞ্জের গৃহকর্মীর আর্তনাদ বেনজীরের সম্পদ অনুসন্ধানে দুদক ইন্টারনেট ব্যবসা নিয়ে সংঘর্ষে আহত ৫০ কুলাউড়ায় কালবৈশাখী ঝড়ে বিদ্যুৎ বিপর্যয় হোটেলে অসামাজিক কাজের অভিযোগে নারীসহ আটক ৯ ইন্টারনেট ব্যবসা নিয়ে সংঘর্ষে আহত ৫০ দেশে ৩ দিনের ‘হিট অ্যালার্ট’, সিলেটে থাকবে ঝড়-বৃষ্টি যুদ্ধ ব্যয়ের অর্থ জলবায়ু পরিবর্তনে ব্যবহার হলে বিশ্ব রক্ষা পেত: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা হাইল হাওরে চিকন ধানের বাম্পার ফলন বালু উত্তোলনে ক্ষয়ক্ষতির মুখে নদী সংলগ্ন এলাকা হাওরজুড়ে সোনালী ধানের ঢেউ, দাম নিয়ে শঙ্কায় কৃষকরা অভিনেতা রুমি মারা গেছেন ঈদযাত্রায় ২৮৬ সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৩২০ ১৯ দিনে প্রবাসী আয় এসেছে ১২৮ কোটি ১৫ লাখ ডলার জৈন্তাপুরে চেয়ারম্যান পদে ৫ প্রার্থীর মনোনয়ন দাখিল বিশ্বনাথে পানিতে ডুবে প্রাণ গেল দুই ভাইয়ের বেনজীরের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা চেয়ে দুদকে এমপি ব্যারিস্টার সুমন
আগাম প্রচারে মাঠে প্রার্থীরা
নবীগঞ্জে জমে উঠেছে উপজেলা নির্বাচন

আগাম প্রচারে মাঠে প্রার্থীরা
নবীগঞ্জে জমে উঠেছে উপজেলা নির্বাচন

কিবরিয়া চৌধুরী, হবিগঞ্জ :: দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের রেশ কাটতে না কাটতেই উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের প্রার্থী নিয়ে ব্যাপক আলোচনা শুরু হয়েছে হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলাজুড়ে। ইতোমধ্যেই আওয়ামী লীগের অনেক নেতা নির্বাচনে প্রার্থী হওয়ার বিষয়ে জানান দিচ্ছেন। নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা না হলেও মাঠ পর্যায়ে গণসংযোগে নেমে পড়েছেন নবীগঞ্জের সম্ভাব্য প্রার্থীরা। নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সম্ভাব্য প্রার্থী হিসেবে অনেকেই ভোটারদের সাথে আগাম শুভেচ্ছা ও যোগাযোগ রক্ষা করে চলেছেন। তাদের সমর্থকদেরও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে প্রচার প্রচারণা করতে দেখা যাচ্ছে।
আওয়ামী লীগের হয়ে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে পারেন এমন অনেক প্রার্থীর নাম বেশ জোরেশোরে উচ্চারিত হচ্ছে। এবারে উপজেলা পর্যায়ে কোন দলের কারা হবেন প্রার্থী, সেই হিসাব-নিকাশ নিয়ে রাজনৈতিক মহলে নানা আলোচনার ঝড় বইছে। বিএনপি নির্বাচনে না আসার ব্যাপারে ঘোষণা দেওয়ায় মাঠে নেই দলটির কোনো প্রার্থী। তবে দলীয় সিদ্ধান্তের বাইরে গিয়ে প্রার্থী হওয়ার গুঞ্জনও রয়েছে।
এদিকে, উপজেলা পরিষদ নির্বাচন আগামী মে মাসের প্রথম সপ্তাহ থেকে শুরু করতে চায় নির্বাচন কমিশন। গণমাধ্যমে এমন তথ্য জানিয়েছেন ইসি। এসএসসি পরীক্ষা ও রমজানের বিষয়টি চিন্তা করে এই সময় নির্বাচন করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি। ইসি সূত্রমতে, ঈদের পর অনুষ্ঠিত হতে পারে নবীগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচন।
২০১৯ সালে নবীগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে উপজেলা যুবলীগের আহŸায়ক মো. ফজলুল হক চৌধুরী সেলিম স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে ৪৭ হাজার ২৩০ ভোট পেয়ে উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। ওই নির্বাচনে তৎকালীন উপজেলা চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আলমগীর চৌধুরী নৌকা প্রতীকে ভোট পেয়েছিলেন ২৬ হাজার ১১৩।
এবার নবীগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের হেভিওয়েট প্রার্থী হিসেবে মাঠে আছেন বর্তমান উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফজলুল হক চৌধুরী সেলিম, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নুর উদ্দিন চৌধুরী বুলবুল, সাবেক সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট আব্দুল মোছাব্বিরের ছেলে ও জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট সুলতান মাহমুদ এবং উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি ও ইউপি চেয়ারম্যান ইমদাদুর রহমান মুকুল। এছাড়া উপজেলা বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক মুজিবুর রহমান শেফু ও যুবদল নেতা শেখ মোস্তফা কামাল নির্বাচনী মাঠে রয়েছেন।
এ পর্যন্ত চেয়ারম্যান পদে ৬ জন প্রার্থী হওয়ার খবর পাওয়া যাচ্ছে উপজেলাজুড়ে। এর বাইরে অন্য কেউ প্রার্থী হতে চাইলেও তা গণমাধ্যমকর্মী ও জনসাধারণের অজানা। অন্যদিকে কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্ত অনুযায়ী নির্বাচনে না যাওয়ার ঘোষণা দেওয়ায় বিএনপির কোনো সম্ভাব্য প্রার্থী বা নেতাকর্মীকে নির্বাচনী কার্যক্রমে দেখা যায়নি।
বিএনপির তৃণমূল নেতাকর্মীদের মধ্যেও উপজেলা নির্বাচন নিয়ে কোনো ধরনের আগ্রহ দেখা যায়নি। তবে উপজেলা নির্বাচন নিয়ে হাট-বাজার, চায়ের দোকান, পাড়া-মহল্লায় আওয়ামী লীগের সম্ভাব্য প্রার্থীদের নামের পাশাপাশি বিএনপি ও এর শরীক দলের সম্ভাব্য প্রার্থীদের নিয়েও আলোচনা করছেন সাধারণ ভোটাররা। দলীয় সিদ্ধান্তের বাইরে গিয়ে চেয়ারম্যান পদে নবীগঞ্জ উপজেলা বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম আহŸায়ক মুজিবুর রহমান চৌধুরী সেফু প্রার্থী হওয়ার গুঞ্জন রয়েছে। যদিও বিষয়টি এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি।
ইতোমধ্যে গণসংযোগ-মতবিনিময়ে অংশ নিচ্ছেন আওয়ামী লীগের সম্ভাব্য প্রার্থীরা। যোগাযোগ রাখছেন তৃণমূল পর্যায়ের কর্মী-সমর্থকদের সঙ্গে। মাঠের রাজনীতির পাশাপাশি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুক মুখরিত সম্ভাব্য প্রার্থীদের কর্মী-সমর্থকদের পোস্টে। এছাড়াও ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হতে পারেন এমন বেশ কয়েকজনের নাম শোনা যাচ্ছে।
এদিকে, সম্প্রতি আগারগাঁও নির্বাচন কমিশন ভবনে নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে ইসি বলেছেন, উপজেলা নির্বাচন করার সময় যেটা, সে সময়টা চলে এসেছে। এসএসসি পরীক্ষা শুরু হয়ে যাচ্ছে। এরপর রমজান মাস। রোজার মধ্যে তো নির্বাচন করা সম্ভব না। ঈদের পরপরই যাতে নির্বাচন হয় সেইভাবে আমরা প্রস্তুতি নিচ্ছি।
মে মাসের প্রথম সপ্তাহ থেকে শুরু হয়ে একই মাসের শেষ সপ্তাহের মধ্যে নির্বাচন শেষ করতে চাইছেন ইসি। রমজানের শেষের দিকে তফসিল হতে পারে জানিয়ে ইসি বলেন, ঈদের কিছুদিন আগে তফসিল হতে পারে। আর নির্বাচনী প্রচারণা এবং নির্বাচন ঈদের পরে হবে।
কতটি উপজেলায় নির্বাচন হবে এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, এখন সবগুলো উপজেলা পরিষদে নির্বাচন সম্ভব হবে না। প্রায় চার শতাধিক পরিষদে নির্বাচন হবে।
২০১৫ সালে স্থানীয় সরকার নির্বাচনের আইন সংশোধন করে দলীয় প্রতীকে ভোটের বিষয়টি যুক্ত করা হয়। আর ২০১৭ সালের মার্চে প্রথমবার তিন উপজেলায় দলীয় প্রতীকে ভোট হয়। তবে ২০১৯ সালে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ চেয়ারম্যান পদ বাদে বাকি দুটি পদ উন্মুক্ত রাখে। এবার উপজেলা নির্বাচনে নৌকা প্রতীক না দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে।
এদিকে বিএনপি এই উপজেলা নির্বাচনেও অংশগ্রহণ করছে না বলে জানিয়েছেন দলটির যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। দলীয় প্রতীকবিহীন নির্বাচন হওয়ায় দল-মতের উর্ধ্বে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির ঘরোয়া অনেক রাজনৈতিক নেতা নির্বাচনী মাঠে রয়েছেন। ফলে জমে no উঠেছে উপজেলা পরিষদের নির্বাচনী মাঠ। In উক্ত নির্বাচনে ভাইস চেয়ারম্যান পদে লড়তে একাধিক প্রার্থী মাঠে কাজ করছেন।
১৩টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভা নিয়ে গঠিত নবীগঞ্জ উপজেলা। এই উপজেলায় মোট ভোটারের সংখ্যা ২ লাখ ৭৭ হাজার ৮০০ জন।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017
Design BY Web Nest BD
ThemesBazar-Jowfhowo