শনিবার, ১৩ Jul ২০২৪, ০৩:১৯ পূর্বাহ্ন

নোটিশ :
সিলেট বিভাগসহ দেশের প্রতিটি জেলা ও উপজেলা সদরে প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে। আগ্রহীরা আমাদের পত্রিকার ইমেইল ঠিকানায় পূর্নাঙ্গ জীবন বৃত্তান্ত প্রেরণের আহবান জানানো যাচ্ছে। এছাড়া প্রবাসের বিভিন্ন দেশে আমরা প্রতিনিধি নিয়োগ দিচ্ছি।
শিরোনাম :
সেই ১৪ ট্রাক চোরাই চিনির নিলাম আজ বিপৎসীমার ওপরে সুরমার পানি, ভোগান্তিতে লক্ষাধিক মানুষ বেড়েছে ধলাই নদীর পানি, ঝুঁকিপূর্ণ প্রতিরক্ষা বাঁধ কর্মবিরতিতে শাবিতে অচলাবস্থা তৃতীয় দফায় বন্যার কবলে সিলেট অঞ্চল, পানিবন্দি কয়েক লাখ মানুষ মাধবপুরে কবরস্থান দখল করে কঙ্কাল তুলে সবজি চাষের অভিযোগ হবিগঞ্জে নাগালের বাইরে সবজির দাম শ্মশানঘাটে ২ শিশুর লাশ সমাহিত করতে বাধা, নদীতে ভাসিয়ে দিল পরিবার হবিগঞ্জে ছোট ভাইয়ের হাতে বড় বোন খুন ভারতে ধর্মীয় অনুষ্ঠানে পদদলিত হয়ে নিহত ১২০ দোয়ারাবাজারে নৌকা ডুবে শিশুসহ নিখোঁজ ৩ সিলেটে মাদকসহ তিন যুবক আটক ধোপাগুলে ট্রাক-কার সংঘর্ষে স্বামী-স্ত্রী নিহত চাঁদাবাজি করতে গিয়ে যুবলীগ নেতা আটক হবিগঞ্জে পানিতে ডুবে দুই শিশুর মৃত্যু শেখ হাসিনা অসহায় মানুষের পরম বন্ধু: শফিক চৌধুরী সিলেট-সুনামগঞ্জে ফের বন্যার শঙ্কা হবিগঞ্জে মাকে হত্যার দায়ে ছেলের মৃত্যুদণ্ড বিদেশি মদসহ দুইজন গ্রেপ্তার দক্ষিণ সুরমায় খাদ্য সামগ্রী বিতরণ জকিগঞ্জে বিপুল পরিমাণ ভারতীয় মদসহ একজন গ্রেপ্তার বিশ্বম্ভরপুর থানায় ব্রেস্ট ফিডিং কর্নার উদ্বোধন হবিগঞ্জে বন্যা পরবর্তী সময়ে খাদ্য সংকটে শিশুরা তারেককে দেশে ফেরাতে জোর তৎপরতা চলছে: প্রধানমন্ত্রী ঈদযাত্রায় ৩০৯টি সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৪৫৮ গাজায় নিখোঁজ ২০ হাজারের বেশি শিশু নগরীতে পুনর্বাসন কেন্দ্রে তিন কিশোরীর আত্মহত্যার চেষ্টা শায়েস্তাগঞ্জে চিনি বোঝাই ট্রাকের চাপায় পুলিশ কনস্টেবল নিহত, আটক ৩ মধ্যনগরে সেই চেয়ারম্যানসহ ২০ জনের বিরুদ্ধে মামলা বন্যার পানি নেমে গেলেও বিপাকে আশ্রয়হীনরা
সিলেটে নতুন বই এসেছে চাহিদার তুলনায় অর্ধেক

সিলেটে নতুন বই এসেছে চাহিদার তুলনায় অর্ধেক

 

জাগ্রত সিলেট ডেস্ক :: সিলেটে মাধ্যমিক, দাখিল ও ইবতেদায়ির নতুন বইয়ের চাহিদা ৫৫ লাখ ৯৫ হাজার ৮৫০টি। বিপরীতে বই এসেছে ২৮ লাখ ৩৯ হাজার ১৪৩টি। জেলার ১৩টি উপজেলার মধ্যে সদর ও ওসমানীনগর উপজেলা ছাড়া শতভাগ ইবতেদায়ি স্তরের বই বরাদ্দ এসেছে ১১টি উপজেলায়। সিলেটে মাধ্যমিক স্তরের বইয়ের চাহিদা ৩৭ লাখ ৬৫ হাজার ৩২৭। প্রাপ্ত বই ১৫ লাখ ৩০ হাজার ৪২১। সে হিসাবে বইয়ের ঘাটতি ২২ লাখ ৩৪ হাজার ৯০৬।

 

এছাড়া দাখিল স্তরের বইয়ের চাহিদা ১১ লাখ ৪০ হাজার ৭৭৯টি। প্রাপ্ত বই ৬ লাখ ৮০ হাজার ৭১৬। ঘাটতি রয়েছে ৪ লাখ ৬০ হাজার ৬৩টি বইয়ের। ইবতেদায়ি স্তরে বইয়ের চাহিদা ৬ লাখ ৮৯ হাজার ৭৪৪টি। প্রাপ্ত বই ৬ লাখ ২৮ হাজার ৬। বইয়ের ঘাটতি ৬১ হাজার ৭৩৮।

 

এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন সিলেট জেলা শিক্ষা অফিসার আবু সাঈদ মো. আব্দুল ওয়াদুদ। তিনি জানান, জেলা শিক্ষা অফিস থেকে চাহিদা অনুসারে ১৩টি উপজেলার বইয়ের চাহিদা অনুসারে তালিকা পাঠালে সে পরিমাণ বইয়ের বরাদ্দ আসেনি। বরাদ্দ আসার পরপরই পর্যায়ক্রমে বিদ্যালয়গুলোয় বই পাঠানো হবে।

 

জানা যায়, সিলেট সদর উপজেলায় মাধ্যমিক স্তরের বইয়ের চাহিদা ৯ লাখ ৫৪ হাজার ৩২১, প্রাপ্ত বই ২ লাখ ২৯ হাজার ৪০৭, প্রাপ্তির হার ২৪ শতাংশ। এই উপজেলায় দাখিল স্তরের বইয়ের চাহিদা ১ লাখ ৯৭ হাজার ৮৪১, প্রাপ্ত বই ৪৭ হাজার ২৯২, প্রাপ্তির হার ২৪ শতাংশ। এ ছাড়া ইবতেদায়ি স্তরের বইয়ের চাহিদা ১ লাখ ১৯ হাজার ৪৪, প্রাপ্ত বই ৭২ হাজার ৪৬৬, প্রাপ্তির হার ৬১ শতাংশ।

 

ওসমানীনগর উপজেলায় মাধ্যমিক স্তরের বইয়ের চাহিদা ১ লাখ ৭০ হাজার, প্রাপ্ত বই ৮৬ হাজার ৫৫০, প্রাপ্তির হার ৫১ শতাংশ। এই উপজেলায় দাখিল স্তরের বইয়ের চাহিদা ৭৮ হাজার ১৫৫, প্রাপ্ত বই ৪৯ হাজার ৯৫০, প্রাপ্তির হার ৬৪ শতাংশ। এ ছাড়া ইবতেদায়ি স্তরের বইয়ের চাহিদা ৪১ হাজার, প্রাপ্ত বই ২৫ হাজার ৮৪০, প্রাপ্তির হার ৬৩ শতাংশ।

 

বিশ্বনাথ উপজেলায় মাধ্যমিক স্তরের বইয়ের চাহিদা ২ লাখ ৩৩ হাজার ২০০, প্রাপ্ত বই ১ লাখ ৬৩ হাজার, প্রাপ্তির হার ৪৭ শতাংশ। এই উপজেলায় দাখিল স্তরের বইয়ের চাহিদা ১ লাখ ৮০০, প্রাপ্ত বই ৬৯ হাজার ৮০০, প্রাপ্তির হার ৬৪ শতাংশ। এ ছাড়া ইবতেদায়ি স্তরের বইয়ের চাহিদা ৬৪ হাজার ৬০০, প্রাপ্ত বই সমপরিমাণ প্রাপ্তি শতভাগ।

 

গোয়াইনঘাট উপজেলায় মাধ্যমিক স্তরের বইয়ের চাহিদা ২ লাখ ৮৬ হাজার ৭৬৮, প্রাপ্ত বই ১ লাখ ৭৯ হাজার ৮৭, প্রাপ্তির হার ৬২ শতাংশ। এই উপজেলায় দাখিল স্তরের বইয়ের চাহিদা ৫৭ হাজার ৩, প্রাপ্ত বই ৪১ হাজার ৪৩১, প্রাপ্তির হার ৭৩ শতাংশ। এ ছাড়া ইবতেদায়ি স্তরের বইয়ের চাহিদা ৩০ হাজার ১৩৬, প্রাপ্ত বই সমপরিমাণ প্রাপ্তি শতভাগ।

 

বালাগঞ্জ উপজেলায় মাধ্যমিক স্তরের বইয়ের চাহিদা ১ লাখ ১ হাজার ২০০, প্রাপ্ত বই ৪৬ হাজার ৫০০, প্রাপ্তির হার ৪৬ শতাংশ। এই উপজেলায় দাখিল স্তরের বইয়ের চাহিদা ৪০ হাজার ৯৭০, প্রাপ্ত বই ২৮ হাজার ৭৮০, প্রাপ্তির হার ৭০ শতাংশ। এ ছাড়া ইবতেদায়ি স্তরের বইয়ের চাহিদা ১৭ হাজার ৯০০, প্রাপ্ত বই সমপরিমাণ প্রাপ্তি শতভাগ।
দক্ষিণ সুরমায় মাধ্যমিক স্তরের বইয়ের চাহিদা ২ লাখ ৮৬ হাজার ৯০৫, প্রাপ্ত বই ১ লাখ ১৭ হাজার ৩৮৬, প্রাপ্তির হার ৪১ শতাংশ। এই উপজেলায় দাখিল স্তরের বইয়ের চাহিদা ১ লাখ ৩৭ হাজার ৮২, প্রাপ্ত বই ৪৯ হাজার ৬১০, প্রাপ্তির হার ৪৮ শতাংশ। এ ছাড়া ইবতেদায়ি স্তরের বইয়ের চাহিদা ৭৮ হাজার ২২৬, প্রাপ্ত বই সমপরিমাণ প্রাপ্তি শতভাগ।

 

বিয়ানীবাজার উপজেলায় মাধ্যমিক স্তরের বইয়ের চাহিদা ২ লাখ ১২ হাজার ৩০০, প্রাপ্ত বই ৯৫ হাজার ৮০০, প্রাপ্তির হার ৪৫ শতাংশ। এই উপজেলায় দাখিল স্তরের বইয়ের চাহিদা ৬৭ হাজার ৪০০, প্রাপ্ত বই ৪৮ হাজার, প্রাপ্তির হার ৭১ শতাংশ। এ ছাড়া ইবতেদায়ি স্তরের বইয়ের চাহিদা ৪১ হাজার, প্রাপ্ত বই সমপরিমাণ প্রাপ্তি শতভাগ।
কোম্পানীগঞ্জ উপজেলায় মাধ্যমিক স্তরের বইয়ের চাহিদা ১ লাখ ৪৭ হাজার ২০০, প্রাপ্ত বই ৭৬ হাজার ৫০০, প্রাপ্তির হার ৫২ শতাংশ। এই উপজেলায় দাখিল স্তরের বইয়ের চাহিদা ৫১ হাজার ৮০০, প্রাপ্ত বই ৩৭ হাজার ৩০০, প্রাপ্তির হার ৭২ শতাংশ। এ ছাড়া ইবতেদায়ি স্তরের বইয়ের চাহিদা ৫২ হাজার ৪০০, প্রাপ্ত বই সমপরিমাণ প্রাপ্তি শতভাগ।

 

সিলেট জেলা শিক্ষা অফিসে মাধ্যমিক স্তরের বইয়ের চাহিদা ১ লাখ ৮০ হাজার ৫৭০, প্রাপ্ত বই ৪২ হাজার ৩০০। প্রাপ্তির হার ৪১ শতাংশ।

 

কানাইঘাট উপজেলায় মাধ্যমিক স্তরের বইয়ের চাহিদা ৩ লাখ ৪০ হাজার ৬১০, প্রাপ্ত বই ১ লাখ ৮৪ হাজার ৪৮৫, প্রাপ্তির হার ৫৪ শতাংশ। এই উপজেলায় দাখিল স্তরের বইয়ের চাহিদা ১ লাখ ২৮ হাজার ৭০০, প্রাপ্ত বই ৮৯ হাজার ৩০০, প্রাপ্তির হার ৬৯ শতাংশ। এ ছাড়া ইবতেদায়ি স্তরের বইয়ের চাহিদা ৭৪ হাজার ৪০০, প্রাপ্ত বই সমপরিমাণ প্রাপ্তি শতভাগ।

 

ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলায় মাধ্যমিক স্তরের বইয়ের চাহিদা ১ লাখ ৫ হাজার ৬৫০, প্রাপ্ত বই ৪৩ হাজার ৪৫২, প্রাপ্তির হার ৪১ শতাংশ। এই উপজেলায় দাখিল স্তরের বইয়ের চাহিদা ৫৫ হাজার ১১৫, প্রাপ্ত বই ৩৭ হাজার ৮৭৭, প্রাপ্তির হার ৬৯ শতাংশ। এ ছাড়া ইবতেদায়ি স্তরের বইয়ের চাহিদা ২৬ হাজার ৬২৪, প্রাপ্ত বই সমপরিমাণ প্রাপ্তি শতভাগ।
জকিগঞ্জ উপজেলায় মাধ্যমিক স্তরের বইয়ের চাহিদা ৩ লাখ ২৪ হাজার ৯৩০, প্রাপ্ত বই ১ লাখ ৬৭ হাজার ৭৩০, প্রাপ্তির হার ৫২ শতাংশ। এই উপজেলায় দাখিল স্তরের বইয়ের চাহিদা ১ লাখ ৬৯ হাজার ৬০, প্রাপ্ত বই ৮৫ হাজার ২৬০, প্রাপ্তির হার ৮০ শতাংশ। এ ছাড়া ইবতেদায়ি স্তরের বইয়ের চাহিদা ৬৪ হাজার ৬০০, প্রাপ্ত বই সমপরিমাণ প্রাপ্তি শতভাগ।

 

গোলাপগঞ্জ উপজেলায় মাধ্যমিক স্তরের বইয়ের চাহিদা ২ লাখ ৬৭ হাজার ৬৭৩, প্রাপ্ত বই ৫২ হাজার ৪২৪, প্রাপ্তির হার ২০ শতাংশ। এই উপজেলায় দাখিল স্তরের বইয়ের চাহিদা ১ লাখ ৬৭ হাজার ৩, প্রাপ্ত বই ৭২ হাজার ৪৬৬, প্রাপ্তির হার ৬৮ শতাংশ। এ ছাড়া ইবতেদায়ি স্তরের বইয়ের চাহিদা ৪২ হাজার ৬৫৪, প্রাপ্ত বই সমপরিমাণ প্রাপ্তি শতভাগ।

 

জৈন্তাপুর উপজেলায় মাধ্যমিক স্তরের বইয়ের চাহিদা ১ লাখ ৫৪টি। বই এসেছে ১ লাখ ২৫ হাজার। প্রাপ্তির হার ৬৭ শতাংশ। এই উপজেলায় দাখিল স্তরের বইয়ের চাহিদা ৪৫ হাজার ৫৫০টি। প্রাপ্ত বই ২৩ হাজার ৬৫০টি। প্রাপ্তির হার ৬৬ শতাংশ। এ ছাড়া ইবতেদায়ি স্তরের বইয়ের চাহিদা ৩৭ হাজার ১৬০টি। এখানে শতভাগ বই এসেছে।

 

 

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017
Design BY Web Nest BD
ThemesBazar-Jowfhowo