শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ১০:৫৯ অপরাহ্ন

নোটিশ :
সিলেট বিভাগসহ দেশের প্রতিটি জেলা ও উপজেলা সদরে প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে। আগ্রহীরা আমাদের পত্রিকার ইমেইল ঠিকানায় পূর্নাঙ্গ জীবন বৃত্তান্ত প্রেরণের আহবান জানানো যাচ্ছে। এছাড়া প্রবাসের বিভিন্ন দেশে আমরা প্রতিনিধি নিয়োগ দিচ্ছি।
শিরোনাম :
সিলেটে চোরাই মোটরসাইকেলসহ যুবক আটক একসঙ্গে ৬ সন্তানের জন্ম, আনন্দে আত্মহারা মা-বাবা ওসমানীনগরে বাস-ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে আহত ২ শান্তিগঞ্জে কোরআন প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের পুরস্কার বিতরণ অন্যান্য খেলার পাশাপাশি দেশি খেলাকে সুযোগ দিন: প্রধানমন্ত্রী আবারও শ্রেষ্ঠ ওসি জুড়ীর মাইন উদ্দিন দলের সিদ্ধান্ত উপেক্ষা করে নির্বাচনে বিএনপির ৬ নেতা প্রেস কাউন্সিলের সনদ ফেরত দিয়ে সুনামগঞ্জে ১১ সাংবাদিকের প্রতিবাদ ঈদযাত্রায় সড়কে প্রাণ গেছে ৪০৭ জনের বজ্রপাত আতঙ্কে হাওরবাসী কুলাউড়ায় ট্রেনের কাটা পড়ে নারীর মৃত্যু দুইদিন পর চালু হলো তামাবিল স্থলবন্দর ইজারা নিয়ে সংঘর্ষের আশঙ্কা, ছাতকে ১৪৪ ধারা জারি তাপপ্রবাহের কারণে স্কুল-কলেজ সাত দিন বন্ধ মার্চে সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণহানি ৫৬৫ জনের সিলেটের চার উপজেলায় লড়বেন ৬০ জন প্রার্থী শান্তিগঞ্জে গৃহবধূর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার থাইল্যান্ড যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী সিলেটে শিলাবৃষ্টির আভাস মৌলভীবাজার পৌরসভার দুটি প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন স্ত্রীর পরকীয়া প্রেমিকের হুমকিতে নিরুপায় স্বামী কারিতাস বাংলাদেশ মানুষের কল্যাণে কাজ করে যাচ্ছে: এম এ মান্নান এমপি কোম্পানীগঞ্জে শাহিন হত্যাকারীদের ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন হাঁসে ধান খাওয়াকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে বৃদ্ধ নিহত আমাদের লক্ষ্য খাদ্য নিরাপত্তা ও পুষ্টি: প্রধানমন্ত্রী সুনামগঞ্জে বোরোর বাম্পার ফলনে কৃষকের মুখে হাসি নবীগঞ্জে বাস চাপায় ২জন নিহত নদী যেন ময়লার ভাগাড়, দূষিত হচ্ছে পরিবেশ সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ হারালেন সংগীতশিল্পী পাগল হাসান ধান কাটানো নিয়ে দুশ্চিন্তায় কৃষকেরা
প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ মানছেন না আমার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী হাবিব- ডা. দুলাল

প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ মানছেন না আমার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী হাবিব- ডা. দুলাল

নিজস্ব প্রতিবেদক :: দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সিলেট-৩ আসনে স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য পদপ্রার্থী ডা. ইহতেশামুল হক চৌধুরী দুলাল সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময় করে উদ্বেগ ও শঙ্কা প্রকাশ করেছেন। ভোটের মাঠে নৌকার প্রার্থী ও তার কর্মী-সমর্থকরা নানা প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করছেন বলে দাবি করেছেন ডা. দুলাল।
মঙ্গলবার বেলা ২টায় সিলেট নগরীর নয়াসড়কের একটি অভিজাত পার্টি সেন্টারে সাংবাদিকদের সাথে আয়োজিত মতবিনিময়কালে বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের (বিএমএ) মহাসচিব ডা. দুলাল বলেন, আমি দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সিলেট-৩ আসনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশা করেছিলাম। আমার নির্বাচনী এলাকা দক্ষিণ সুরমা, ফেঞ্চুগঞ্জ ও বালাগঞ্জ উপজেলার সর্বস্তরের জনসাধারণের মতামত নিয়ে দীর্ঘদিন যাবত এলাকার মানুষের পাশে থেকে কাজ করার সুবাদে তারা আমাকে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন নিয়ে নির্বাচন করার পরামর্শ দিয়েছিলেন। কিন্তু আমি দলের মনোনয়ন লাভে সফল হতে পারিনি। তবে দলের সভাপতি জননেত্রী শেখ হাসিনা দলের প্রার্থীকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হওয়ার সাংগঠনিক বিধি-নিষেধ উঠিয়ে নেন।
ডা. দুলাল বলেন, নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হলে দল কোনো শাস্তি আরোপ করবে না। তাই আমি আমার নির্বাচনী এলাকার আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের সর্বস্তরের নেতৃবৃন্দ ও জনসাধারণের অনুরোধে স্বতন্ত্র প্রার্থী হই। স্বতন্ত্র প্রার্থিতার বিষয়ে মনোনয়ন বাছাইয়ের দিনে ১% ভোটারের সমর্থন তালিকায় ত্রুটি আছে মর্মে আমাকে জানিয়ে কোনো ধরনের আত্মপক্ষ সমর্থনের সুযোগ না দিয়ে সুষ্ঠু তদন্ত ছাড়াই আমার প্রার্থিতা বাতিল করে দেওয়া হয়। পরবর্তীতে নির্বাচন কমিশনে আপিল করলে কমিশন আমার প্রার্থিতা ফিরিয়ে দেয়।
দুলাল আরও বলেন, আমার নির্বাচনী প্রতীক ট্রাক। প্রতীক বরাদ্দ পেয়েই আনুষ্ঠানিক নির্বাচনী প্রচার কাজ শুরু করি আমি। এসময় সর্বস্তরের মানুষ যে অকুণ্ঠ সমর্থন দিচ্ছেন তাতে আমি অভিভূত। নির্বাচনী মাঠে তারা যেভাবে আমাকে কাছে টেনে নিয়েছেন, তা প্রমাণ করে এই আসনের মানুষ তাদের পাশে একজন আপনজন পেতে চান। তারা এমন জনপ্রতিনিধি চান যে সুখে-দুঃখে পাশে থাকবে। দুর্যোগে ও দুঃসময়ে তাদের আগলে রাখবে, তাদেরকে সুরক্ষা দেবে। হয়তো নিকট অতীতে তারা সেটি পাননি বা বঞ্চিত হয়েছেন। যে কারণে তারা আমাকে সমর্থন দিচ্ছেন এবং ট্রাক প্রতীকে ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করতে চাইছেন। যেহেতু এই এলাকায় আগে থেকেই আমার অবাধ বিচরণ সেহেতু আমার প্রচার কাজ আরও সহজ থেকে সহজতর হয়ে উঠেছে।
শঙ্কা ও উদ্বেগ প্রকাশ করে ডা. দুলাল বলেন, আনুষ্ঠানিকভাবে মাঠে নামার শুরু থেকেই আমার প্রতিদ্বন্দ্বী নৌকার প্রার্থীর লোকজন মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনাকে অবজ্ঞা করে আমার জনপ্রিয়তায় ঈর্ষান্বিত হয়ে আমার কর্মীদের সাথে হিংসাত্মক আচার-আচরণ করছেন। তারা আমার পোস্টার, ব্যানার ছিঁড়ে ফেলছেন। আমার পক্ষে কাজ না করার জন্য আমার কর্মীদের নানাভাবে হুমকি দিচ্ছেন। উপনির্বাচনে আমার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী সংসদ সদস্য নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে এখন পর্যন্ত দলের নেতাকর্মীদের বিশেষ করে সাবেক সংসদ সদস্য মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরীর কর্মীদের মিথ্যে মামলায় ফাঁসিয়ে দিয়ে ভীত-সন্ত্রস্ত করছেন। তিনি নিশ্চিত পরাজয় বুঝতে পেরেই আমার কর্মীদের সাথে হিংসাত্মক আচরণ করার জন্য তার কর্মীদের লেলিয়ে দিচ্ছেন। এরই ধারাবাহিকতায় গত ২৩ ডিসেম্বর বালাগঞ্জের পশ্চিম গৌরীপুর ইউনিয়ন থেকে বালাগঞ্জ সদরে আমার অফিস উদ্বোধন অনুষ্ঠানে আসার পথে গাড়ি থেকে নামিয়ে দেন স্থানীয় দুই ইউপি সদস্যকে। তারা আমার কর্মীদের আমার পক্ষে কাজ না করার জন্য হুমকি প্রদান করেন। একই দিনে ফেঞ্চুগঞ্জের উত্তর কুশিয়ারা ইউনিয়নের পাঠানচক গ্রামে আমার ব্যানার লাগাতে দেননি নৌকার প্রার্থীর কর্মীরা। পাঠানচক গ্রামে ট্রাক প্রতীকের সমর্থনে কোনো ধরণের প্রচার-প্রচারণা যেন না চালানো হয় এ বিষয়েও আমার কর্মীদের হুমকি প্রদান করা হয়েছে। ঘিলাছড়া ইউনিয়নের মোকামেরতল বাজারে আমার নির্বাচনী কার্যালয়ে ঢুকে আমার পোস্টার ছিঁড়ে ফেলে এবং আমার লোকজনকে হুমকি প্রদান করা হয়েছে। জালালপুরে দক্ষিণ সুরমা উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি ও নৌকার প্রার্থীর বিশ্বস্ত লোক হিসেবে পরিচিত মীর মতিউর রহমান জালালপুরে আমার কর্মীদের প্রকাশ্যে হুমকি-ধমকি দিচ্ছেন। এছাড়া ৩টি উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় নৌকার প্রার্থীর লোকজন আমার কর্মীদের প্রকাশ্যে হুমকি দিচ্ছে, ভয়-ভীতি দেখাচ্ছে। বিভিন্নভাবে আমার কর্মীদের মানসিকভাবে দুর্বল করার চেষ্টা চলছে। এছাড়া আমার প্রতিদ্বন্দ্বী নৌকা প্রার্থীর উচ্ছৃঙ্খল কর্মীরা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমগুলোতে আমার বিরুদ্ধে মিথ্যাচার করে আসছেন। বিষয়গুলো আমি রিটার্নিং অফিসার, সহকারী রিটার্নিং অফিসার ও সংশ্লিষ্ট থানার ওসিদের লিখিতভাবে জানিয়েছি। তবে মনে হচ্ছে তারা এ বিষয়ে উদাসীন। তাই সার্বিক নির্বাচন পরিস্থিতি নিয়ে আমি উদ্বিগ্ন।
ডা. দুলাল আরও বলেন, অবহেলিত বালাগঞ্জ উপজেলাকে নিয়ে আমার স্বপ্ন দীর্ঘদিনের। সংসদ সদস্য নির্বাচিত হলে পিছিয়ে পড়া এ জনপদকে প্রতিটি সেক্টরে স্বয়ংসম্পূর্ণ করাই হবে আমার প্রথম কাজ। বিশেষ করে শিক্ষা, চিকিৎসা ও যোগাযোগ খাতকে আমি সবচেয়ে বেশি প্রাধান্য দেবো। শাহজালাল ফার্টিলাইজার ফ্যাক্টরিকে ঘিরে বিশাল অর্থনৈতিক অঞ্চলে রূপান্তর হয়েছে ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলা। এ উপজেলায় শিক্ষা, চিকিৎসায় অগ্রগতির ব্যাপারে আমি অগ্রাধিকার ভিত্তিতে কাজ করবো। দক্ষিণ সুরমা উপজেলায় শিক্ষা, চিকিৎসা ও যোগাযোগ খাতকে আমি আরও বেগবান করবো। বালাগঞ্জ ও ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলা থেকে দক্ষিণ সুরমা উপজেলাটি উন্নয়নে অনেকাংশে এগিয়ে। প্রয়াত সংসদ সদস্য মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরীর সঠিক পদক্ষেপের কারণে এ উপজেলাটিতে সরকারের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ প্রতিষ্ঠানের বিভাগীয় অফিসও হয়েছে। শিক্ষা ও চিকিৎসায় অগ্রাধিকার দিয়ে এ উপজেলাটিকে শতভাগ স্বয়ংসম্পূর্ণ করাই আমার মূল লক্ষ্য থাকবে। সর্বোপরি সিলেট-৩ সংসদীয় আসনকে একটি স্বয়ংসম্পূর্ণ এবং সর্বক্ষেত্রে সমৃদ্ধ নির্বাচনী এলাকায় রূপান্তরিত করাই হবে আমার লক্ষ্য। কারণ এই আসনে এক সময় সংসদ সদস্য ছিলেন আমার বড় ভাই মরহুম ইনামুল হক চৌধুরী বীরপ্রতীক।
সবশেষে ডা. দুলাল বলেন, স্বতন্ত্র প্রার্থীদের সম্পর্কে দেওয়া মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কোনো নির্দেশনাই মানছেন না আমার প্রতিদ্বন্দ্বী নৌকার প্রার্থী। বরং মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর প্রত্যেকটি নির্দেশনাকে উপেক্ষা করছেন তিনি। নির্বাচনী পরিবেশ বিনষ্ট করছেন তিনি ও তার কর্মীরা। তার কর্মীরা ভোটারদেরকে ভোটে না আসার জন্য বিভিন্ন ভয়-ভীতি দেখাচ্ছেন। তাদের এমন কার্যক্রমে আমি বেশ উদ্বিগ্ন।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017
Design BY Web Nest BD
ThemesBazar-Jowfhowo