শুক্রবার, ২১ Jun ২০২৪, ০৮:৩৩ অপরাহ্ন

নোটিশ :
সিলেট বিভাগসহ দেশের প্রতিটি জেলা ও উপজেলা সদরে প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে। আগ্রহীরা আমাদের পত্রিকার ইমেইল ঠিকানায় পূর্নাঙ্গ জীবন বৃত্তান্ত প্রেরণের আহবান জানানো যাচ্ছে। এছাড়া প্রবাসের বিভিন্ন দেশে আমরা প্রতিনিধি নিয়োগ দিচ্ছি।
শিরোনাম :
প্রধানমন্ত্রী প্রতিনিয়ত বানভাসি মানুষের খোঁজখবর রাখছেন: শফিক চৌধুরী সিলেটে বন্যায় ৭ লাখ ৭২ হাজার শিশু ক্ষতিগ্রস্ত বাকিতে বিড়ি না দেওয়ায় ছুরিকাঘাতে যুবককে হত্যা বড়লেখায় বন্যার পানিতে ডুবে স্কুলছাত্রীর মৃত্যু সিলেট বিভাগের এইচএসসি পরীক্ষা স্থগিত গোয়াইনঘাট থেকে ১৪৩ বস্তা চিনিসহ আটক ১ বিয়ানীবাজারে চিনি ছিনতাইয়ের ঘটনায় ছাত্রলীগ নেতা গ্রেফতার পবিত্র ঈদুল আজহার শুভেচ্ছা জানালেন প্রতিমন্ত্রী শফিক চৌধুরী আসুন ঈদুল আজহার ত্যাগের চেতনায় দেশ ও মানুষের কল্যাণে কাজ করি: প্রধানমন্ত্রী বৃষ্টিতে নাজেহাল কামারপাড়া রাত পোহালেই ঈদ কামরানকে সিলেটবাসী এখনও ভুলতে পারেনি- প্রতিমন্ত্রী শফিক চৌধুরী ঈদে সুস্থ থাকার টিপস সবুজ বাংলাদেশ গড়ে তুলুন: প্রধানমন্ত্রী ‘লাব্বাইক আল্লাহুম্মা লাব্বাইক’ ধ্বনিতে মুখর আরাফাত ময়দান সার্বিক নিরাপত্তাব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে: সিসিক মেয়র ঈদের দিন সিলেটে হতে পারে বৃষ্টি সিলেটে বিপৎসীমার উপরে নদ-নদীর পানি, আবারও বন্যার শঙ্কা সুনামগঞ্জে পাহাড়ি ঢলে বাড়ছে নদ-নদীর পানি পর্যটকদের স্বাগত জানাতে প্রস্তুত চুনারুঘাট সিলেটে কখন কোথায় ঈদের জামাত জগন্নাথপুরে পুলিশের পক্ষ থেকে ঈদ উপহার বিতরণ শপথ নিলেন ১০ উপজেলার নবনির্বাচিত জনপ্রতিনিধিরা ফাঁদে ফেলে প্রবাসী তরুণীর ভিডিও ধারণ, যুবক গ্রেপ্তার এমপি ইমরান আহমদের পক্ষ থেকে ঈদ উপহার বিতরণ জামালগঞ্জে ৭ মাস ধরে বেতন পাচ্ছেন না ১৯ শিক্ষক-কর্মচারী সিলেটে আবাসিক হোটেল থেকে আটক ৬ ওসমানীনগরে মাছ ধরতে গিয়ে জেলে নিখোঁজ গোয়াইনঘাটে ভাইয়ের হাতে ভাই খুন জৈন্তাপুরে ১১ ট্রাক ভারতীয় চিনি জব্দ
কৈলাসটিলা-২: দিনে ৭০ লাখ ঘনফুট গ্যাস সরবরাহ শুরু

কৈলাসটিলা-২: দিনে ৭০ লাখ ঘনফুট গ্যাস সরবরাহ শুরু

 

নিজস্ব প্রতিবেদক :: সিলেট গ্যাসফিল্ড লিমিটেড (এসজিএফএল) বুধবার রাত থেকে জাতীয় গ্রিডে প্রতিদিন ৭০ লাখ ঘনফুট গ্যাস সরবরাহ শুরু করেছে। যার বর্তমান বাজারমূল্য প্রায় দেড় কোটি টাকা। এসজিএফএলের অধীন গোলাপগঞ্জের কৈলাসটিলা গ্যাসক্ষেত্রের ২ নম্বর কূপ থেকে এই গ্যাস সরবরাহ করা হবে। কৈলাসটিলা-২ নম্বর কূপে ৫ হাজার ৩০০ কোটি বা ৫৩ বিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস মজুত রয়েছে। গ্যাসের সঙ্গে এই কূপ থেকে উপজাত হিসেবে দৈনিক ৭০ ব্যারেল কনডেনসেট পাওয়া যাবে।

 

এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন এসজিএফএলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. মিজানুর রহমান। তিনি বলেন, ‘কৈলাসটিলা-২ নম্বর কূপে ৫৩ বিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস মজুত আছে। প্রতিদিন ৭০ লাখ ঘনফুট গ্যাস জাতীয় গ্রিডে যুক্ত হবে। তবে এখনো জাতীয় গ্রিডে পাঠানো হয়নি। পরীক্ষা করা হচ্ছে। আশা করা যায়, রাত থেকে জাতীয় গ্রিডে পাঠানো যাবে।’

 

মিজানুর রহমান আরও বলেন, ‘পেট্রোবাংলার চেয়ারম্যান বা সচিব আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেবেন। পেট্রোবাংলার চেয়ারম্যান বিষয়টি অবগত হয়েছেন, জ্বালানিসচিবকে জানানো সম্ভব হয়নি, উনি মিটিংয়ে আছেন। জ্বালানি প্রতিমন্ত্রীকে লিখে আমি জানিয়েছি। আমরা কখন দেব, সেই সিদ্ধান্ত এখনো হয়নি। কারণ, আমাদের একটা প্রস্তুতির বিষয় আছে।’

 

এর আগে বুধবার বেলা আড়াইটায় শিখা প্রজ্বালনের মাধ্যমে ২০২১ সাল থেকে বন্ধ থাকা কৈলাসটিলা-২ কূপে আনুষ্ঠানিক উত্তোলন শুরু হয়। এই কূপে মজুত থাকা ৫৩ বিলিয়ন ঘনফুট গ্যাসের আনুমানিক বাজারমূল্য ৩ হাজার ৬০০ কোটি টাকা। আর এলএনজি দর বিবেচনায় ৯ হাজার ৯ কোটি টাকা।

 

এসজিএফএল সূত্র জানায়, গোলাপগঞ্জের কৈলাসটিলা-২ নম্বর কূপ থেকে দীর্ঘদিন গ্যাস উত্তোলন বন্ধ ছিল। জ্বালানির সংকট নিরসনে গ্যাস উৎপাদন বাড়াতে দেশের ৪৬টি কূপ অনুসন্ধান, খনন ও পুনঃখননের পরিকল্পনা নেয় সরকার। ২০২৫ সালের মধ্যে এসব খননকাজ শেষ হওয়ার কথা। এতে ৬১৮ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস উত্তোলন করা যাবে বলে আশা করা হচ্ছে। এ পরিকল্পনার অংশ হিসেবে এসজিএফএলের আওতাধীন সিলেটের ১৪টি কূপ খনন ও পুনঃখননের কাজ শুরু হয়। তিনটি পরিত্যক্ত কূপ পুনঃখনন শেষে গত বছর থেকে গ্যাস উত্তোলন করা হচ্ছে। সিলেট-৮, কৈলাসটিলা-৭ ও বিয়ানীবাজার-১ কূপ থেকে বর্তমানে দিনে ১১ মিলিয়ন বা ১ কোটি ১০ লাখ ঘনফুট গ্যাস জাতীয় গ্রিডে সরবরাহ করছে এসজিএফএল। এরই ধারাবাহিকতায় গত ২৭ জুলাই কৈলাসটিলার পরিত্যক্ত ২ নম্বর কূপ পুনঃখনন শুরু হয়। ১৪ নভেম্বর কূপের ৩ হাজার ২৬২ মিটার নিচে গ্যাসের সন্ধান পাওয়া যায়। এসজিএফএলের নিজস্ব অর্থায়নে কৈলাসটিলা-২ কূপের ওয়ার্কওভারে ব্যয় হয়েছে প্রায় ৭১ কোটি ৮৫ লাখ টাকা।

 

এ ছাড়া গত ২৪ জুন এসজিএফএলের আওতাধীন হরিপুরের সিলেট-১০ নম্বর কূপেও পুনঃখনন শুরু হয়। শিগগির এই কূপ থেকে দিনে ১০ মিলিয়ন বা ১ কোটি ঘনফুট গ্যাস উত্তোলন করা যাবে। একইভাবে রশিদপুর-২ নম্বর কূপ পুনঃখনন শুরুর সব ধরনের প্রস্তুতি শেষ। শিগগির কাজ শুরু হবে এবং তিন মাসের মধ্যে এ কূপ থেকে দৈনিক দেড় কোটি ঘনফুট গ্যাস উত্তোলন করে জাতীয় গ্রিডে সরবরাহ করা হবে।

 

সব মিলিয়ে এসজিএফএলের আওতাধীন উৎপাদিত কূপের সংখ্যা ১৩। কূপগুলো থেকে প্রতিদিন ১০০ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস জাতীয় গ্রিডে সরবরাহ করা হয়। যার আনুমানিক বাজারমূল্য ১০০ কোটি টাকা।

 

১৯৫৫ সালে সিলেটের হরিপুরে প্রথম গ্যাসের সন্ধান পাওয়া যায়। এরপর আবিষ্কার হতে থাকে একের পর এক গ্যাসক্ষেত্র। বর্তমানে দেশে ২৮টি গ্যাসক্ষেত্র রয়েছে। এগুলোর মধ্যে এসজিএফএলের আওতায় আছে ৫টি। সেগুলো হলো হরিপুর গ্যাসফিল্ড, রশিদপুর গ্যাসফিল্ড, ছাতক গ্যাসফিল্ড, কৈলাসটিলা গ্যাসফিল্ড ও বিয়ানীবাজার গ্যাসফিল্ড। এগুলোর মধ্যে ছাতক গ্যাসফিল্ড পরিত্যক্ত।

 

 

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017
Design BY Web Nest BD
ThemesBazar-Jowfhowo