শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ১২:২৪ পূর্বাহ্ন

নোটিশ :
সিলেট বিভাগসহ দেশের প্রতিটি জেলা ও উপজেলা সদরে প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে। আগ্রহীরা আমাদের পত্রিকার ইমেইল ঠিকানায় পূর্নাঙ্গ জীবন বৃত্তান্ত প্রেরণের আহবান জানানো যাচ্ছে। এছাড়া প্রবাসের বিভিন্ন দেশে আমরা প্রতিনিধি নিয়োগ দিচ্ছি।
শিরোনাম :
মার্চে সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণহানি ৫৬৫ জনের সিলেটের চার উপজেলায় লড়বেন ৬০ জন প্রার্থী শান্তিগঞ্জে গৃহবধূর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার থাইল্যান্ড যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী সিলেটে শিলাবৃষ্টির আভাস মৌলভীবাজার পৌরসভার দুটি প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন স্ত্রীর পরকীয়া প্রেমিকের হুমকিতে নিরুপায় স্বামী কারিতাস বাংলাদেশ মানুষের কল্যাণে কাজ করে যাচ্ছে: এম এ মান্নান এমপি কোম্পানীগঞ্জে শাহিন হত্যাকারীদের ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন হাঁসে ধান খাওয়াকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে বৃদ্ধ নিহত আমাদের লক্ষ্য খাদ্য নিরাপত্তা ও পুষ্টি: প্রধানমন্ত্রী সুনামগঞ্জে বোরোর বাম্পার ফলনে কৃষকের মুখে হাসি নবীগঞ্জে বাস চাপায় ২জন নিহত নদী যেন ময়লার ভাগাড়, দূষিত হচ্ছে পরিবেশ সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ হারালেন সংগীতশিল্পী পাগল হাসান ধান কাটানো নিয়ে দুশ্চিন্তায় কৃষকেরা জুড়ীতে জামায়াত নেতার মনোনয়ন বাতিল বালাগঞ্জে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প অনুষ্ঠিত শাবিতে মুজিবনগর দিবস পালিত জুড়ীতে মুজিবনগর দিবস উদযাপন মধ্যপ্রাচ্যের উত্তেজনা নিয়ে মন্ত্রীদের তীক্ষ্ণ নজর রাখার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর ঝালকাঠিতে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত বেড়ে ১৪ ঈদের ছুটিতে লাউয়াছড়ায় সর্বাধিক রাজস্ব আয় চায়ের ন্যায্যমূল্য না পেয়ে হতাশ বাগান মালিকরা শ্রীমঙ্গলে তাপদাহে মানুষের নাভিশ্বাস র‍্যাবের হাতে গ্রেপ্তার মাদক ব্যবসায়ী পুলিশের ঘুষিতে আসামির মৃত্যু! সিলেটকে স্মার্ট সিটি হিসেবে গড়তে নানা পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে: আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী বৃষ্টিতে আরব আমিরাতে বন্যা, দুবাই বিমানবন্দরে ফ্লাইট চলাচল বন্ধ শিল্পী সমিতির নির্বাচনে লড়ছেন যেসব তারকা
খানাখন্দ আর গর্তে ভরা সড়কে লক্ষাধিক মানুষের দুর্ভোগ

খানাখন্দ আর গর্তে ভরা সড়কে লক্ষাধিক মানুষের দুর্ভোগ

 

নবীগঞ্জ প্রতিনিধি :: হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলার অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ সড়ক রুদ্রগ্রাম-নবীগঞ্জ সড়ক। এটি ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের সঙ্গে নবীগঞ্জ শহরের যোগাযোগের একমাত্র মাধ্যম। সড়কটির ১০ কিলোমিটার অংশজুড়ে বেহাল দশা। অধিকাংশ স্থান খানাখন্দ আর বড় গর্তে ভরা। সামান্য বৃষ্টি হলেই জমে যায় পানি। প্রতিদিনই ঘটছে ছোট-বড় দুর্ঘটনা। ভোগান্তিতে পড়ছেন পথচারী, যাত্রীসাধারণসহ পরিবহন চালকরা।

 

সরেজমিন দেখা যায়, হওয়ায় পানিউমদা, গজনাইপুর, দেবপাড়া ও বাউসা ইউনিয়নের প্রত্যন্ত অঞ্চলের লক্ষাধিক মানুষের চলাচলের মাধ্যম এ সড়ক। এই সড়ক দিয়ে শাহ তাজ উদ্দিন কুরেশী (রহ.) উচ্চবিদ্যালয়, ধুলচাতল তাজিয়া মোবাশ্বীরিয়া আলিম মাদ্রাসা, দিনারপুর কলেজ, দিনারপুর উচ্চবিদ্যালয়, দিনারপুর দাখিল মাদ্রাসা, পানিউমদা রাগীব-রাবেয়া স্কুল অ্যান্ড কলেজসহ বহু সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী, শিক্ষক, সরকারি চাকরিজীবী, ব্যবসায়ীসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার লোকজনকে চলাচল করতে হয়। একমাত্র বাইপাস সড়ক হওয়ায় ট্রাক, ট্রাক্টর, অটোভ্যান, ব্যাটারি ও সিএনজিচালিত অটোরিকশা, প্রাইভেটকার, মাইক্রোবাস প্রতিনিয়ত চলাচল করতো। কিন্তু সড়কের বেহাল দশায় যান চলাচল কমে গেছে। ফলে শিক্ষক-শিক্ষার্থী, ব্যবসায়ীসহ যাত্রীরা চরম ভোগান্তিতে পড়েছেন। সড়কটির সংস্কার কাজে সাড়ে ৮ কোটি টাকা ব্যয় হলেও অনিয়ম-দুর্নীতির কারণে তা কাজে আসেনি বলে অভিযোগ করেন স্থানীয়রা। তারা দ্রুত টেকসই সংস্কারের দাবি জানিয়েছেন।

 

সড়কটি ঠিকভাবে সংস্কার না হওয়ায় বর্তমানে কোথাও কোথাও পাকার চিহ্ন খুঁজে পাওয়া যায় না। নবীগঞ্জ-রুদ্রগ্রাম ১০ কিলোমিটার সড়কের আইনগাঁও, ভরপুর, চৌধুরী বাজার, বাউসা বাজার, বাউসা পয়েন্ট, বাউসা মাদ্রাসা পয়েন্ট, নাদামপুর মাদ্রাসা পয়েন্ট, রিফাতপুর, শিবপাশাসহ প্রায় ৮ কিলোমিটার সড়কজুড়ে কার্পেটিং উঠে গিয়ে বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। একেকটা গর্ত যেন মরণফাঁদ। এতে স্থানীয়দের মধ্যে ব্যাপক ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। একটু বৃষ্টি হলেই রাস্তার খানা-খন্দ পানিতে ভরে যায়। কাদামাটি-পানি অতিক্রম করে যান চলাচল করছে। লাখো মানুষকে নানান প্রতিকূলতা আর জীবনের ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করতে হচ্ছে এ সড়কে।

 

অধিকাংশ স্থান খানাখন্দ আর বড় গর্তে ভরা নবীগঞ্জের বাশডর গ্রামের মুসা তালুকদার বলেন, ‘নবীগঞ্জ-রুদ্রগ্রাম সড়কের বেহাল অবস্থা। একদিন নবীগঞ্জ গেলে বাড়িতে এতে ব্যথার ওষুধ খেতে হয়। সড়কটি দ্রুত সংস্কার করা হলে জনসাধারণ অনেক উপকৃত হবে।’

 

একটি বেসরকারি সংস্থার কর্মী মোশারফ আলী মিঠু বলেন, ‘বিভিন্ন কাজে উপজেলা সদরে নবীগঞ্জ-রুদ্রগ্রাম সড়ক হয়ে যেতে হয়। বৃষ্টি হলে সড়কটির বড় বড় গর্তে পানি জমে যাওয়ায় মানুষের খুবই দুর্ভোগ হয়। নিম্নমানের কাজ হওয়ায় সড়ক সংস্কারের একমাস পর থেকে ভাঙতে শুরু করে। এখন একেকটা ভাঙন মরণফাঁদে পরিণত হয়েছে।’

 

সিএনজি অটোরিকশা চালক আকলু মিয়া জানান, সড়কটি পুরোপুরি ভেঙে গেছে। কেউই সংস্কার করার উদ্যোগ নিচ্ছেন না। ভাঙা সড়ক দিয়ে গাড়ি চালানোর কারণে কয়েকদিন পরপর অটোরিকশা নষ্ট হয়ে যায়। দ্রুত সংস্কার হলে আমরা উপকৃত হবো।’

 

এ প্রসঙ্গে নবীগঞ্জ উপজেলা এলজিইডি কার্যালয়ের প্রকৌশলী জোনাইদ আলম বলেন, ‘৫ কোটি ৫৫ লাখ টাকা ব্যয়ে নবীগঞ্জ-রুদ্রগ্রাম সড়ক সংস্কারের জন্য ইতোমধ্যে হবিগঞ্জ এলজিইডির নির্বাহী প্রকৌশলীর কার্যালয় থেকে ঢাকায় প্রাক্কলন অনুমোদনের জন্য পাঠানো হয়েছে। অনুমোদনের পর টেন্ডার প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে দ্রুত কাজ শুরু হবে।’

 

উল্লেখ্য, ২০১৮ সালের শেষের দিকে নবীগঞ্জ-রুদ্রগ্রাম সড়ক ৮ কোটি ৫১ লাখ টাকা ব্যয়ে সংস্কার কাজ করে হবিগঞ্জের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান মেসার্স হাসান বিল্ডার্স। নির্মাণের একমাসের মাথায় সড়কটি ভেঙে যায়।

 

 

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017
Design BY Web Nest BD
ThemesBazar-Jowfhowo